ছাত্রীর সন্তানকে কোলে নিয়ে ক্লাস নিলেন শিক্ষক

ছাত্রীর সন্তানকে কোলে নিয়ে ক্লাস নিলেন শিক্ষক

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাল্যবিয়ের শিকার স্কুলছাত্রীর সন্তানকে কোলে নিয়ে ক্লাস নিলেন পঙ্কজ কান্তি মধু (৪৫) নামের এক শিক্ষক। গতকাল রোববার (৩ অক্টোবর) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর

উপজেলার চিনাইর অঞ্জুমান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। সন্তানকে কোলে নিয়ে পাঠে মনোযোগী হতে না পারায় ছাত্রীর সুবিধার্থে তিনি শিশুটিকে কোলে নিয়ে ক্লাস নেন। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সবার নজরে পড়ে। অধিকাংশ নেটিজেনরা এ ঘটনায় শিক্ষকের প্রশংসা করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, করোনার কারণে গত বছরের মার্চে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের পর দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীর বিয়ে হয়। সম্প্রতি তিনি একটি শিশু সন্তানের জন্ম দেন। সন্তান জন্মের পর ওই ছাত্রী ক্লাসে আসা বন্ধ করে দেয়। বিদ্যালয়ের শিক্ষক পঙ্কজ মধু ঘটনা জানার পর তাকে ক্লাস আসতে বলেন।

এ বিষয়ে শিক্ষক পঙ্কজ মধু বলেন, করোনার কারণে স্কুল বন্ধ ঘোষণার পর দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে তার পরিবার বিয়ে দিয়ে দেয়। সম্প্রতি বিষয়টি জানার পর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করি। রোববার (৩ অক্টোবর) ওই ছাত্রী তার স্বামী ও সন্তানকে নিয়ে স্কুলে আসে।

আমি ছাত্রী ও তার স্বামীকে বুঝিয়ে বলি পড়ালেখা চালিয়ে যাওয়ার জন্য। তখন ছাত্রী তার কোলের শিশুকে নিয়ে ক্লাসরুমে বসে। কিন্তু কোলের শিশুর জন্য মনোযোগ দিতে না পারায় আমি শিশুটিকে কোলে নেই।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোশাররফ হোসেন বলেন, পঙ্কজ কান্তি মধু ইংরেজির একজন ভালো শিক্ষক। শিক্ষার্থীদের ব্যাপারে খুবই আন্তরিক। পড়াশোনা করানোর পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের কার কী ধরনের অসুবিধা, পরিবারে সমস্যার বিষয়ে খোঁজখবর রাখেন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!