রাত ৯টা, পায়ের শব্দ শুনে দরজা খুলতেই পেলেন চিরকুটসহ টাকা

রাত ৯টা, পায়ের শব্দ শুনে দরজা খুলতেই পেলেন চিরকুটসহ টাকা

রাত তখন ৯টা। হঠাৎ কানে এলো মানুষের পায়ের শব্দ। দরজা খুলে বের ‘হতেই দেখেন কেউ একজন দ্রুতগতিতে বাড়ি ছাড়ছেন। পিছুও নেন। কিন্তু দেখা আর পাননি।

ফিরে আসার পর চোখ কপালে ওঠার মতো হয়। ঘরের দরজা বন্ধ করতে গিয়ে দেখেন পড়ে আছে ১০০ টাকার নোট। টাকার সঙ্গে রয়েছে একটি চি’রকু’ট।

শুক্রবার রাতে রহস্যজনক ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী পৌর-সভার সুখাতী ভাটিয়াটারী গ্রামে। টাকার সঙ্গে চি’রকু’টটি একজন নয়, পেয়েছেন পাঁচ বাড়ির মালিক। এতে ‘হতবাক তারা।

গ্রামের আমিনুর রহমানের ছেলে হাসানুর রহমান বলেন, শুক্রবার রাতের খাওয়া শেষে সাড়ে ৮টায় ঘরের দরজা দিয়ে শুয়ে পড়ি। রাত ৯টার দিকে হঠাৎ মানুষের পায়ের শব্দ শুনে দরজা খুলে বের হই।

পরে দেখি কেউ একজন বাড়ি থেকে দ্রুত বেরিয়ে যাচ্ছেন। পিছু পিছু গিয়েও দেখা পাইনি। ফিরে এসে দরজা বন্ধ করতে গিয়ে দেখি একটা ১০০ টাকার নোট পড়ে আছে। টাকার সঙ্গে হলুদ কাগজের একটি চি’রকু’ট।

চি’রকু’টে লেখা আছে- ‘এই টাকা’টা ক্ষ’তি করেছি মাফ করে দেবেন’। পরে হাসানুর রহমান শুনতে পান একইভাবে একই এলাকার আবু বকরের ছেলে আব্দুল বারেকের ঘরের দরজায় ১০ টাকা, ইসমাইলের ছেলে আব্দুস সাত্তারের ঘরের দরজায় ৫০ টাকা,

শমসের আলীর ছেলে সাইদুরের ঘরের দরজায় ৩০ টাকা, ছফর আলীর ছেলে মজনু মিয়ার ঘরের দরজায় ১০০ টাকা রেখে গেছে অজানা কোনো ব্যক্তি।

মুহূর্তেই ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ভিড় জমান উৎসুক জনতা। ঘটনাটি নিছক রসিকতা না অন্যকিছু এ নিয়ে এলাকায় চলছে ব্যাপক আলোচনা।

নাগেশ্বরী পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ড কমিশনার রুহুল আমিন বলেন, ওই গ্রামটি আমা’র নির্বাচনী এলাকার অন্তর্ভুক্ত। বি’ষয়টি আমা’র কানেও এসেছে। কে, কেন এ কাজটি করেছে তা আমা’র বোধগম্য নয়।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!