মিরপুরে জলহস্তীর সাথে মানুষের বন্ধুত্ব, জলহস্তীর সাথে মানুষের বন্ধুত্বের এই ভিডিও তুমুল ভাইরাল নেট দুনিয়ায়।

মিরপুরে জলহস্তীর সাথে মানুষের বন্ধুত্ব, জলহস্তীর সাথে মানুষের বন্ধুত্বের এই ভিডিও তুমুল ভাইরাল নেট দুনিয়ায়।

পেটের দায়ে কত কিছুই না করতে হয়! তবে শুনলে অবাক হবেন পৃথিবীতে এমন অনেক চাকরি আছে, যেগুলোকে আপনি চাকরি হিসেবে ভাবতেই পারবেন না! পৃথিবী জুড়ে অনেক মানুষের বেঁচে থাকার রসদ যোগাচ্ছে এই চাকরিগুলো!

আজ জানাবো তেমনই চারটি অদ্ভুত চাকরির কথা। গাড়ির নাম্বার প্লেট ঢেকে রাখার চাকরি রাস্তায় গাড়ির সংখ্যা ও দূষণ কমানোর জন্য দিল্লিতে একদিন অন্তর ইভেন ও অড নম্বরের গাড়ি চালানোর নিয়ম রয়েছে। এই একই নিয়ম রয়েছে ইরানেও।

সেখানেও গাড়ির সংখ্যা কমাতে ইভেন অড নম্বরের প্রচলন রয়েছে। আর সেই বিষয়টিকে মাথায় রেখে এক অভিনব পদ্ধতি বের করেছেন সেদেশের বাসিন্দারা। তারা এমন কিছু মানুষকে নিযুক্ত করেন যিনি একটি গাড়ির পিছনে থাকবেন।

যাতে সেই গাড়ির নম্বর প্লেট কোনোভাবেই ক্যামেরাতে ধরা না পড়ে। গাড়ির সঙ্গে সঙ্গে যাবেন ওই ব্যক্তি। সত্যিই এমন চাকরিও যে পৃথিবীতে হয় যা কল্পনাই করা যায় না।

উটপাখির বাচ্চাকে দেখভাল করার চাকরি বাচ্চাকে দেখভাল করার জন্য অনেকেই লোক রাখেন। তবে জানেন কি উটপাখির বাচ্চাকে দেখাশোনা করার জন্যও লোক রাখা হয়। তারা যাতে নিজেদের মধ্যে লড়াই না করে সেটা দেখেন ওই ব্যক্তি।

জলহস্তীর দাঁত মাজার চাকরি সকাল বেলা উঠে আমরা সবাই দাঁত মাজি। তবে কখনো কোনো পশুকে দাঁত মাজতে শুনেছেন? না শুনলেও ঘটনাটি সত্যি। জাপানে এমন একটি চাকরি রয়েছে যেখানে জলহস্তীকে দাঁত মাজাতে হয়।

পুকুরের সামনে থাকা একটি পাথরের উপরে বিশাল হাঁ করে উপস্থিত হয় জলহস্তী। আর একটি বড় ব্রাশ দিয়ে তার দাঁত মাজিয়ে দেন এক ব্যক্তি। জারের মধ্যে সাপের বিষ নেয়ার চাকরি সাপকে ভয় পান অনেকেই।

তবে ভাবুন তো এক ঘর সাপের মধ্যে যদি আপনাকে কখনো ঢুকতে হয়! ভাবলেই গা শিউরে উঠছে তাই না? এমনই একটি চাকরি রয়েছে বিশ্বে। যেখানে একটি ঘর থেকে সাপগুলোকে বেছে নিতে হয়।

তারপর তাদের একটি বস্তায় ঢুকিয়ে অন্য ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে একটি জারের মধ্যে তাদের বিষ নেয়া হয়। সেই বিষ দিয়েই তৈরি হয় একাধিক ওষুধ। সত্যি যার মনে প্রচুর সাহস রয়েছে তিনিই একমাত্র এই কাজ করতে পারেন।

ইলেক্ট্রিক শক সাধারণত মানসিক রোগীদের ইলেক্ট্রিক শক দেওয়া হয়। জানেন কি মেক্সিকোতে এমন চাকরিও রয়েছে যেখানে আপনি চাইলে আপনাকে এক ব্যক্তি শক দেবেন। সাধারণত তাদের টোকিউস বলা হয়। কোনো পাবের বাইরে হাতে একটি ছোটো কাঠের বাক্স নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকেন তারা। আর পাবে ঢোকার সময় অনেকেই ইলেক্ট্রিক শক খেয়ে যান। আজব সব চাকরি!

ভিডিওটি দেখতে

ক্লিক করুন

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!