কোমলমতি শি’শুর স্মৃ’তিশক্তি বাড়ানোর ১০ সহজ সূত্র!

কোমলমতি শি’শুর স্মৃ’তিশক্তি বাড়ানোর ১০ সহজ সূত্র!

শি’শুদের মেধাবী করে গড়ে তুলতে ছোটবেলা থেকেই মস্তিষ্কের চর্চা বাড়ানো প্রয়োজন। অলস মস্তিষ্ক জীবনের অগ্রহতিকে ব্যহত করে। ছোটবেলা থেকে শি’শুদের নানাভাবে মস্তিষ্কের চর্চা করানো হলে একদিকে তারা যেমন নতুন নতুন বিষয় শিখবে, জানবে, পাশাপাশি সঞ্চয় হবে জীবনের নানা অভিজ্ঞতা।

এমন কিছু বিষয় আছে যার অনুসরণ আপনার সন্তানের স্মৃ’তিশ’ক্তি বৃ’দ্ধিতে সহায়তা করবে। সেগুলো সময়নিউজে’র পাঠকদের জন্য তুলে ধ’রা হলো।

১। শি’শুদের মধ্যে অজা’নাকে জা’নার আগ্রহ থাকে প্রবল। অনেকেই শি’শুদের প্রশ্নে বির’ক্তবোধ করে থাকে। একটা পর্যায়ে তারা প্রশ্ন করার সাহস হারিয়ে ফে’লে। তাই আপনার শি’শুকে যথাসম্ভব প্রশ্ন ক’রতে দিন। এমনকি তাকে প্রশ্ন ক’রতে উৎসাহিত করুন।

২। গল্প, কবিতা, গান শি’শুরা সহজেই আয়ত্ব ক’রতে পারে। তাই ছড়া, কবিতা, গান ও গল্প স্মৃ’তিশ’ক্তিকে উর্বর করবে। পরবর্তীতে তাড়াতাড়ি মনে ক’রতে পারবে এবং তা প্র’কাশও ক’রতে পারবে।

৩। মাঝে মধ্যে শি’শুকে বাইরে নিয়ে যাবেন সেটা হতে পারে গ্রন্থাগার, জাদুঘর, কোন দ’র্শনীয় স্থান কিংবা প্রাকৃতিক কোন পরিবেশে। এতে করে শি’শু শিল্প, সাহিত্য, ইতিহাস ও পরিবেশ স’ম্পর্কে জ্ঞান অর্জন ক’রতে পারবে। বিশেষ করে গ্রন্থাগারে খেলার ছলে বই হাতে নিয়ে যা কিছুই পড়ুক বা দেখুক না কেন তা শি’শুর স্মৃ’তিতে গেঁথে যাবে।

৪। শি’শুকে একাকিত্ববোধ থেকে দুরে রাখু’ন। যথাসম্ভব ব’ন্ধুত্বের স’ম্পর্ক গড়ে তুলুন। তাদের মনের কথাগুলো জানুন। তাদের স’ঙ্গে নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করুন। শি’শুদের ভাবনাগুলোকে প্রাধান্য দিন। এতে করে তার চিন্তাভাবনা উন্নত হবে আবার স্মৃ’তিশ’ক্তিও বৃ’দ্ধি পাবে।

৫। সোনামনিদের কোন কিছু শেখানোরা সময় ঐ বিষয়ের স্থিরচিত্র, ভিডিও সম্ভব হলে সেটি সরাসরি দেখানোর চেষ্টা করুন। মুখস্তের চেয়ে তা কয়েকগুণ বেশি ফলদায়ক হবে।

৬। প্রতিদিন শি’শুকে শ’রীরচর্চায় অংশগ্রহণের সুযোগ করে দিন। শ’রীরচর্চা একদিকে শ’রীর ও মন ভালো রাখবে অন্যদিকে, মস্তিষ্কের কা’র্যকারিতা বৃ’দ্ধিতে সহায়তা করবে।

৭। শি’শুকে যথাসম্ভব পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ খাবার খাওয়াতে হবে। পাশাপাশি নি’রাপদ পানি নি’শ্চিত করা জ’রুরি। পানিস্বল্পতা শি’শুর মস্তিষ্কের বিকাশে বা’ধা দেয়।

৮। আপনার সন্তান যেন ইন্টারনেটে আসক্ত হয়ে না প’ড়ে সেদিকে বিশেষভাবে নজর দিতে হবে। কেননা, বিভিন্ন গ্যাজেটের অত্যাধিক ব্যবহার শি’শুর মস্তিষ্কের কাঠামো পরিবর্তন করে দেয় এমনকি স্মৃ’তিশ’ক্তিও হ্রাস পায়। তাই দিনের বেশিরভাগ সময় তাদের নানা কাজে ব্যস্ত রাখু’ন।

৯। শি’শুর মস্তিষ্কের বিকাশে রঙের ব্যবহার গু’রুত্বপূর্ণ। শি’শুরা খুব সহজে রঙ মনে রাখতে পারে। তাই পড়া কিংবা অন্য কোন বিষয়ে রঙের ব্যবহার ক’রতে পারেন।

১০। শি’শুকে কোন কিছু বোঝানোর সময় তার আশেপাশের বিষয়গুলো দিয়ে উদাহরণ দিতে পারেন। এগুলো সে দেখা বা শোনা মাত্রই মনে রাখতে পারবে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!