পাঁচ বছর অপেক্ষার পর একসঙ্গে ৫ সন্তানের জন্ম, বাঁচলো না কেউ

পাঁচ বছর অপেক্ষার পর একসঙ্গে ৫ সন্তানের জন্ম, বাঁচলো না কেউ

রাজশাহীতে একসঙ্গে পাঁচ সন্তান জন্ম দিয়েছেন জেসমিন খাতুন নামের এক নারী। অপরিণত অবস্থায় জন্ম নেয়ায় পাঁচজনই মারা গেছে। জেসমিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরের দেবীনগর ইউনিয়নের কাবাতুল্লাহ মোল্লাটল্লা গ্রামের নির্মাণ শ্রমিক শহিদুল ইসলাম শহিদের স্ত্রী।

একটি সন্তানের জন্য পাঁচ বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে এই দম্পতিকে। জেসমিন গর্ভধারণ করছিলেন না বলে চিকিৎসাও করিয়েছেন। অবশেষে জেসমিন গর্ভধারণ করলেন। কিন্তু তাঁর মুখে হাসি ফুটল না।

জেসমিনের মা ফুলসন বেগম জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়িতে সাড়ে চার মাসের এক সন্তানের জন্ম দেন ২৪ বছর বয়সী জেসমিন। জন্মের পরপর মারা যায় শিশুটি। পরে তাকে নেয়া হয় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে আরও চার সন্তানের জন্ম দেন জেসমিন।

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক রাফিদ মোস্তফা জানান, অস্ত্রোপচারের পর জেসমিনকে ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। তার সন্তানদের রাখা হয় ইনকিউবেটরে। অপরিণত হওয়ায় বিকেল ৫টার দিকে মারা যায় চারজন। মা জেসমিন আশঙ্কামুক্ত বলে নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসক।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!