বার বার ন্যাড়া হলে কী সত্যিই চুল ঘন হয় বেশি?

বার বার ন্যাড়া হলে কী সত্যিই চুল ঘন হয় বেশি?

বাচ্চার চুল খুব পাতলা? ন্যাড়া করালেই চুল ঘন হবে! এমন কথা আমরা বলি এবং শুনি। অনেক বাবা-মা মনে করেন বাচ্চাকে একাধিক বার ন্যাড়া না করলে তার ভালো চুল গজাবে না? কিন্তু এই কথার কোনও বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা কি রয়েছে?

তা নিয়ে কেউ অবশ্য বেশি ভাবেন না। চুলের যত্ন নিয়ে এমন অনেক প্রচলিত ধারণা রয়েছে, যা আসলে সত্যি নয়। কিন্তু যুগ যুগ ধরে এই ভুলগুলি সকলেই করছেন। তাতে হয়তো চুলের ক্ষতি হচ্ছে বেশি। সেগুলি কী, জেনে নিন।

১। রোজ তেল লাগালে চুল তাড়াতাড়ি বাড়বে

এই কথাটা হয়তো অনেকেই বলেছেন। প্রত্যেক দিন নিময় করে মাথায় তেল লাগালে তাড়াতাড়ি চুল বাড়বে। কিন্তু সত্যিটা ঠিক উল্টো। সারা ক্ষণ মাথার তালু তৈলাক্ত হয়ে থাকলে তাতে ধুলো-ময়লা বেশি জমবে এবং তাতে চুল পড়া বাড়বে। সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন তেল মাসাজ করলেই যথেষ্ট। তাতেই মাথার তালুর রক্ত চলাচল বাড়বে এবং চুলের স্বাস্থ্য ভালো হবে। তেল লাগানোর কিছু ক্ষণ পর শ্যাম্পু করে নেওয়া জরুরি।

২। ন্যাড়া হলে চুল ঘন হয়

অনেকেই বাচ্চাদের একাধির বার ন্যাড়া করিয়ে দেন। কিন্তু ন্যাড়া হলেই যে ঘন চুল হবে, তেমন কোনও বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই। চুল গজায় ফলিক্‌ল থেকে। তা মাথার তালুর কয়েক মিলিমিটার নীচে থাকে। মাথার চুল কামানোয় ফলিক্‌লে কোনও ভাবেই প্রভাব পড়ে না।

৩। পাকা চুল তুললে বেশি হবে

চুল পেকে যাওয়ার একাধিক কারণ থাকতে পারে। কিন্তু একটা পাকা চুল টেনে তুললে আরও চুল পেকে যাবে, এমন কোনও প্রমাণ এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। তাড়াতাড়ি চুল পাকার কারণ মূলত জিনগত এবং কিছুটা জীবনযাপনে নানা ভুলত্রুটির জন্য।

৪। নিয়মিত চুল কাটলে চুল বাড়ে তাড়াতাড়ি

নিয়মিত চুল কাটার সঙ্গে চুল কত তাড়াতাড়ি বাড়বে বা কতটা ঘন হবে, তার কোনও সম্পর্ক নেই। তবে কয়েক মাস অন্তর চুল কাটতে বলা হয় যাতে চুলের ডগা ফেটে গেলে কিংবা চুল নীচের দিকে খুব পাতলা হয়ে গেলে, তা কেটে ফেলা যায়। এতে চুলের স্বাস্থ্য ভালো হতে পারে, কিন্তু এতে চুল তাড়াতাড়ি বাড়ার সরাসরি কোনও যোগ নেই।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!