সকালে ঘুম থেকে উঠেই অসহ্য মাথা ধরলে যা করবেন

সকালে ঘুম থেকে উঠেই অসহ্য মাথা ধরলে যা করবেন

সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরেই মাথা যন্ত্রণা বা অস্বস্তি এসব হয়ে থাকে। তবে এর পিছনে রয়েছে কিছু কারণ। তাই মাথা যন্ত্রণায় বার বার ভুগলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। তাই মাঝে মাঝেই মাথা ব্যথা হলে সচেতন হতে হবে বইকি।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: সকালে ঘুম থেকে উঠেই অসহ্য মাথায় ব্যথা, যন্ত্রণা এতই প্রবল যে চোখ খুলে রাখাই কঠিন, সেইসঙ্গে গা গুলানো ও বমি বমি ভাব— অনেকেই আছেন যাঁরা প্রতিদিনই এই ধরনের সমস্যায় ভুগছেন।

বিশেষত যাঁদের মাইগ্রেন ও হাইপারটেনশন আছে তাঁরা এই সমস্যায় রীতিমতো জর্জরিত। শুধু তাই নয়, কাজের জায়গায় ও অফিসে বসে কাজ করাই সমস্যা হয়ে

ওঠে এঁদের কাছে। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরেই মাথা যন্ত্রণা বা অস্বস্তি এসব হয়ে থাকে। তবে এর পিছনে রয়েছে কিছু কারণ। তাই এমন প্রায় হতে থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

এই খাবারগুলি খেলে মাথা ধরা থেকে উপশম পাবেন

১. শশা

২. তরমুজ

৩. কলা

৪. টাটকা সবজি (স্যালাড)

৫. পালং শাক

৬. আলু

এই তালিকায় আরও যে যে খাবারগুলি পড়ে তা হল— হোল গ্রেইন পাঁউরুটি, কফি, আমন্ড, টক দই, মেটে ও সামুদ্রিক মাছ।

কী কী কারণে সকালে মাথা যন্ত্রণা করে

স্লিপ অ্যাপনেয়া- স্লিপ অ্যাপনেয়ার ফলে ঘুমের মধ্যেই শ্বাস প্রশ্বাস প্রক্রিয়ায় ব্যাঘাত ঘটে। এছাড়া গলা শুকিয়ে যাওয়া, নাক ডাকা, ঘুমের মধ্যেই বার বার প্রস্রাব পাওয়া স্লিপ অ্যাপনেয়ার উপসর্গ। স্লিপ অ্যাপনেয়ার ফলে ঘুমে ব্যাঘাত ঘটে। যার জেরে সকাল থেকেই মাথা যন্ত্রণা হয়।

মাইগ্রেন- মাইগ্রেন অন্যতম কারণ সকালে মাথা যন্ত্রণা হওয়ার। সারা বিশ্বের ১০ শতাংশ মানুষ মাইগ্রেনের শিকার। মাইগ্রেনের ফলে দৃষ্টিশক্তি খারাপ হয়। এছাড়া ক্লান্তি থাকে। বিশেষ করে সকালেই মাইগ্রেনের ব্যথা হয়। তবে বিভিন্ন মানুষের মধ্যে বিভিন্ন রকম উপসর্গ দেখা যায়।

হ্যাংওভার- ঘুমোতে যাওয়ার আগেই মদ্যপান করে থাকলে, পরের দিন সকালে মাথা যন্ত্রণা হয়ে থাকে। সঙ্গে সারা রাত তেষ্টা পাওয়া, পরের দিন ক্লান্তি, দ্রুত হৃদস্পন্দন এসব হয়ে থাকে হ্যাংওভার থাকলে।

দৃষ্টিশক্তির সমস্যা-সর্দিতে মাথা যন্ত্রণা হওয়া আর মাঝে মাঝেই মাথা ব্যথায় কাবু হয়ে পড়া এক জিনিস নয়। মাথা যন্ত্রণার সঙ্গে ঝাপসা দেখা বা চোখ থেকে জল পড়ার মানে দৃষ্টিশক্তির সমস্যাও হতে পারে।

স্নায়ুগত কোনও সমস্যা-অজ্ঞান হয়ে যাওয়া বা চোখে অন্ধকার দেখার অর্থ কিন্তু মস্তিষ্কের স্নায়ুগত কোনও সমস্যাও হতে পারে। অনেকেরই মাথার সঙ্গে ঘাড়ে ব্যথা, গা-বমি ভাব এ সবও হয়ে থাকে, তখন আবার ইঙ্গিত যায় মাইগ্রেনের দিকে। আবার মাথার পিছন দিকে ঘন ঘন অসহ্য যন্ত্রণা কিন্তু কোনও টিউমার জাতীয় অসুখ থেকেও হতে পারে।

তাই মাঝে মাঝেই মাথা ব্যথা হলে সচেতন হতে হবে বইকি। কপাল জুড়ে মাথা যন্ত্রণা, না কি মাথার পিছন দিকে ধীরে ধীরে ব্যথা ছড়িয়ে পড়া— ঠিক কী ভাবে আর কোথায় যন্ত্রণা হচ্ছে তার উপরেও নির্ভর করে চিকিৎসা। তাই মাথা যন্ত্রণায় বার বার ভুগলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। কিন্তু সব সময় চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার সুযোগ বা সময় হয় না, আবার ওষুধ খেলেই যে সঙ্গে সঙ্গে ব্যথা কমে যায় এমনটাও নয়।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!