ভারতীয় সিরিয়াল দেখে এটিএম বুথে ডাকাতির পরিকল্পনা

ভারতীয় সিরিয়াল দেখে এটিএম বুথে ডাকাতির পরিকল্পনা

সিলেটের ওসমানীনগরে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবি) এটিএম বুথ ভেঙে ২৪ লাখ টাকা লুটের ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ভারতীয় সিরিয়াল দেখে এটিএম বুথে ডাকাতির পরিকল্পনা করে গ্রেপ্তারকৃতরা।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো মোঃ শামীম আহাম্মেদ, নূর মোহাম্মদ সেবুল ও মোঃ আব্দুল হালিম। এসময় তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত কম্পিউটার, আইডি কার্ড, ভিজিটিং কার্ড, ট্যাক্স সার্টিফিকেটসহ বিভিন্ন ধরণের জাল নিয়োগপত্র উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) ধারাবাহিক অভিযানে রাজধানী ও হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকা হতে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় ডাকাতি করা ২৪ লাখ টাকার মধ্যে ১০ লাখ ৮ হাজার টাকা, ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত ২টি মোবাইল ফোন, ১টি ছুরি, ১টি প্লাস ও মাথায় ব্যবহৃত ৩ টি কাপড়ের টুকরা জব্দ করা হয়।

ডিএমপির যুগ্ম পুলিশ কমিশনার বলেন, গ্রেফতারকৃতরা তথ্য প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পর্কে পারদর্শী। এটিএম বুথের এটিএম মেশিন ভেঙ্গে টাকা লুটের মূল পরিকল্পনাকারী মো. শামীম আহাম্মেদ নিয়মিত ভারতীয় মেগা সিরিয়াল সিআইডি অনুষ্ঠানটি দেখতেন। সেই সিরিয়াল দেখে এটিএম বুথের মেশিন ভাঙ্গার কলাকৌশল রপ্ত করেন এবং টাকা লুটের পরিকল্পনা গ্রহণ করে।

হারুন অর রশিদ বলেন, পরিকল্পনা মোতাবেক তার সহযোগী গ্রেফতারকৃত নূর মোহাম্মদ সেবুল ও মো. আব্দুল হালিমদের সাথে আলোচনা করে। পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য তারা মুখে মাস্ক, মাথায় গোলাপি রংয়ের কাপড় বেঁধে ও মাথায় ক্যাপ পরিধান করে এবং শাবল ও অন্যান্য যন্ত্রপাতিসহ ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের শেরপুর শাখার এটিএম বুথে প্রবেশ করে।

তিনি আরও বলেন, এটিএম বুথের সিসিটিভি ক্যামেরায় তাদের চেহারা যেন না দেখা যায় সেজন্য কালো রংয়ের স্প্রে করে ক্যামেরার লেন্স ঝাপসা করে দেয়। এ সময় তারা এটিএম বুথের সিকিউরিটি গার্ডকে মারধর করে ও হাত ও মুখ বেঁধে দেয়া। পরবর্তীতে তারা শাবল দিয়ে এটিএমে বুথের লক ও বক্স ভেঙ্গে ২৪ লাখ ২৫ হাজার ৫০ টাকা নিয়ে যায়।গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে অন্যান্য থানায় মামলার তথ্য পাওয়া যায়। সংবাদ সম্মেলনে ডিবির সাইবার ইউনিটের উপপুলিশ কমিশনার (ডিসি) শরীফুল ইসলাম বলেন, লুট করা টাকা দিয়ে তারা জুয়া খেলেছে বলে প্রাথমিকভাবে আমাদের জানিয়েছে। তদন্ত চলছে, সিলেট পুলিশ তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে। তারা আরও বিস্তারিত তদন্তে তুলে ধরবেন।

উল্লেখ্য, গত ১২ সেপ্টেম্বর কয়েকজন দুষ্কৃতিকারী ওসমানী নগর থানার শেরপুর নতুন বাজার হাজী ইউনুস উল্ল্যাহ মার্কেটের ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড এর নিচ তলায় স্থাপিত ব্যাংকের এটিএম বুথের দায়িত্বরত নিরাপত্তাকর্মীকে মারধর করে হাত ও মুখ স্কচটেপ পেঁচিয়ে বেধে ফেলে। এরপর তারা এটিএম বুথে স্থাপিত এটিএম মেশিনের সামনের দরজা ও লক ভেঙে নগদ ২৪,২৫,৫০০ টাকা নিয়ে যায়।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!