নিজের জীবন বাজি রেখে বিষধর কোবরার সাথে তুমুল লড়াই করল মা মুরগি, তুমুল ভিডিও ভাইরাল

নিজের জীবন বাজি রেখে বিষধর কোবরার সাথে তুমুল লড়াই করল মা মুরগি, তুমুল ভিডিও ভাইরাল

মুরগি গৃহপালিত পাখিদের মধ্যে অন্যতম। এর মাংস ও ডিম প্রোটিনের অন্যতম উৎস। এরা ১০-১২ ফুটের বেশি উড়তে পারেনা। একবারে ১২-২০ টি ডিম পাড়ে ও তা দিয়ে বাচ্চা ফুটায়। যার জীবনকাল ৫-১০ বছর।

২০১৮ সালের হিসাবে সারা পৃথিবীতে ২৩.৭ বিলিয়ন তথা ২৩৭০ কোটি মুরগি ছিলো। পুর্বে ২০১১ সালে ১৯ কোটিরও বেশি ছিল। অন্য সব পাখির চাইতে মুরগির সংখ্যা বেশি।

এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকার মতে বন্য মুরগিকে পোষ মানিয়ে গৃহপালিত করার কাজটা প্রথম হয়েছিলো ভারতীয় উপমহাদেশে। তবে শুরুতে তা করা হয়েছিলো খাদ্যের জন্য না,

বরং মোরগ লড়াই এর জন্য। ভারতীয় উপমহাদেশ থেকে মুরগিপালন ছড়িয়ে পড়ে পশ্চিম এশিয়ার পারস্য রাজ্য লিডিয়াতে।

খ্রিস্টপূর্ব ৫ম শতকে গ্রিসে সেখান থেকে মুরগি আমদানি করা হয়। মিশরে মুরগিপালন শুরু হয় সেখানকার ১৮শ রাজবংশের সময়কালে,

আর ৩য় তুতমোসের সময়ের ইতিহাস অনুসারে এই প্রথা এসেছিলো সিরিয়া ও ব্যাবিলন হয়ে। আসিল, ফাউমি,রোড আইল্যান্ড রে্‌,সোনালী,হোয়াইট লেগহর্ন ইত্যাদি উল্লেখযগ্য। চট্টগ্রাম এলাকায় মুরগি নামে অবিহিত করা হয়

সম্প্রতিক সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটি দেখলে বোঝা যাবে, পশু পাখিদের মধ্যেও তার সন্তানদের প্রতি এক অতুলনীয় আকর্ষণ থাকে।

প্রত্যেক মা যে তাদের সন্তানদের সবসময় রক্ষা করার চেষ্টা করে তার প্রমাণ মিলেছে ভিডিওটিতে। তবে পুরো ঘটনাটি একটি মুরগি এবং তার সন্তানদের।

বিষধর সাপের হাত থেকে নিজের বাচ্চাদের বাঁচাতে মা মুরগি প্রাণপণ লড়াই করল নিজের জীবন বাজি রেখে। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে যে, একটি পাঁচিল দিয়ে ঘেরা বাগানে গাছগাছালির মধ্যে বসে রয়েছে একটি বিষাক্ত কোবরা।

ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!