মাস গেলে ৭০ হাজার বেতন! এদিকে ১ লাইন রিডিং পড়তে পারেন না সরকারি শিক্ষিকা, মূর্হুতেই ভাইরাল ভিডিও

মাস গেলে ৭০ হাজার বেতন! এদিকে ১ লাইন রিডিং পড়তে পারেন না সরকারি শিক্ষিকা, মূর্হুতেই ভাইরাল ভিডিও

ইংরেজির শিক্ষক হয়েও একবর্ণ ইংরেজি পড়তে পারছেন না স্কুল শিক্ষিকা। সরকারি স্কুলের শিক্ষিকা তিনি। কিন্তু পাঠ্যবই থেকে ইংরেজি রিডিং পড়তে গিয়ে বারবার হোঁচট খেতে হল এই শিক্ষিকাকে।

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের সিকন্দরপুরে একটি সরকারি স্কুলে। জেলা শাসক দেবেন্দ্র কুমার পান্ডে এদিন স্কুল পরিদর্শনে এসেছিলেন। স্কুলে এসেই তাঁর চক্ষুচড়কগাছ হয়ে যায়। স্কুলের শিক্ষিকাকে অষ্টম শ্রেণীর ইংরেজি পাঠ্য বইয়ের রিডিং পড়তে দেন ওই জেলাশাসক।

কিন্তু দুলাইন ইংরেজি পড়তে গিয়ে কার্যত নাকানি-চোবানি খেতে হল ওই শিক্ষিকাকে। এই অবস্থা দেখে তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠেন জেলাশাসক। অবিলম্বে এই শিক্ষিকাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেন তিনি।

জেলা শাসকের অভিযোগ, বিএ পাস করার পরেও একটি লাইন পড়তে পারছেন না এই শিক্ষিকা। এটা কিভাবে সম্ভব।

শিক্ষিকার শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন জেলা শাসক। তাদের ওই শিক্ষিকা গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করতে পেরেছেন কিনা সে বিষয়ে সন্দেহ রয়েই গিয়েছে তার।

স্কুলের শিক্ষিকা নিজেই যদি এক লাইন ইংরেজি পড়তে না পারেন তাহলে তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের কি পড়াবেন? তাই এই অশিক্ষিত শিক্ষিকাকে খুব দ্রুত সাসপেন্ড করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

ছাত্র ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ কি হবে তাই নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। যে শিক্ষিকার নিজেই শিক্ষিত নয় তার থেকে ছাত্রছাত্রীরা কিভাবে শিক্ষা লাভ করবে।

শিক্ষকরা জাতির এক এবং অদ্বিতীয় পরিচয়। শিক্ষক শিক্ষিকারা হলেও জাতির মেরুদন্ড। কিন্তু শিক্ষক শিক্ষিকারা যদি যথাযথ শিক্ষা প্রদান করতে না পারেন তাহলে অবশ্যই পুরো মানব সমাজের ক্ষতি হয়।

যোগ্যতার ভিত্তিতে চাকরি পাননি অনেক এমনও অনেক নজির রয়েছে। তাই বলে একজন অশিক্ষিত শিক্ষিকাকে চাকরিতে নিয়োগ করা মানে শিক্ষাব্যবস্থার ক্ষতি করা। সোশ্যাল মিডিয়ায় সম্প্রতি ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে।

পিতা মাতার পর শিক্ষাগুরুকে ভগবান হিসেবে মানা হয়। অথচ সেই শিক্ষিকা নাকি ইংরেজি বলতে গিয়ে হিমশিম খেয়ে যাচ্ছে। অথচ মাস গেলে ৭০হাজার টাকা মাইনে পাচ্ছেন তিনি। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় কার্যত ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। তাতেই বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে।

সকলের প্রশ্ন তুলেছেন, কোন যোগ্যতায় এই শিক্ষিকা চাকরি পেলেন। “লাভ ইন্ডিয়া” নামক একটি ফেসবুক পেজ থেকে পোস্ট করা এই ভিডিওটি হাজার হাজার মানুষ দেখেছেন। প্রায় সাড়ে ছয় হাজার লাইক পড়েছে ভিডিওটিতে। কমেন্ট সেকশনে সকলেই এই শিক্ষিকার প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

ভিডিওটি দেখতে এখুনি ক্লিক করুন

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!