যে আট কারণে পরীমনির জামিন চান আইনজীবী

যে আট কারণে পরীমনির জামিন চান আইনজীবী

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে করা মামলায় ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনি জেলহাজতে আটক থাকলে চলচ্চিত্র অঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি হবে জানিয়ে জামিনের আবেদন করেছেন তার আইনজীবী। আবেদনে পরীমনির জামিন দেওয়ার জন্য আটটি কারণ তুলে ধরেছেন আইনজীবী মুজিবুর রহমান।

রোববার (২২ আগস্ট) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে পরীমনির জামিন আবেদন করেন আইনজীবী মজিবুর রহমান। জামিন বিষয়ে শুনানির জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত।

যে আটটি কারণে পরীমনির জামিন চান আইনজীবী

১। আসামি একজন নারী ফলে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ এর ৪৭ (১) (গ) মোতাবেক জামিন পেতে পারে। জামিন পেলে আসামি জামিনের শর্ত ভঙ্গ করবে না।

২। আসামি দীর্ঘ ৬ দিন রিমান্ডে থাকাসহ প্রায় ২৬ ঘণ্টা পুলিশ হেফাজতে থাকলেও মামলা সংক্রান্তে জিজ্ঞাসাবাদে কোনো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বা সাক্ষ্য প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

৩। আসামি vertigo এবং ‘পেনিক অ্যাটাক’ এর রোগী, দীর্ঘ সময় পুলিশ কাস্টডিতে অমানবিক নির্যাতনের স্বীকার হয়ে বিপর্যস্ত ও অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। চিকিৎসার স্বার্থে দরখাস্তকারী আসামিকে জামিনে মুক্তি দেওয়া আবশ্যক।

৪। আসামির দখল ও নিয়ন্ত্রণ থেকে মদ ও মাদক উদ্ধার হয়নি। আসানি নির্দোষ, ষড়যন্ত্রের শিকার বিধায় আসামিকে জামিনে মুক্তি দেওয়া আবশ্যক।

৫। পরীমনিকে আটক করা হয় ৪টা ৩০ মিনিটে, উদ্ধার দেখানো ও জব্দ তালিকা তৈরি হয় ৭টা ৩০ মিনিটে, যা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ এর ২৩ (১) (২) ধারার সুস্পষ্ট লংঘন। জব্দ তালিকায় বর্ণিত জব্দের স্থান সম্পর্কে ভিন্নতা রয়েছে।

৬। এজাহার মোতাবেক ঘটনার অভিযান পরিচালনাকারী র্যাব টিম দ্য আর্মড পুলিশ ব্যাটেলিয়ন অর্ডিন্যান্স ১৯৭৯ এর ৬ এবং ৬ এ ধারায় লঙ্ঘন করে অভিযান পরিচালনা করা হয়। ফলে একটি ভিত্তিহীন মামলা দায়ের করার কারণে আসামি জামিন পাওয়ার হকদার।

৭। আসামি পরীমনি একজন প্রথমসারির চিত্রনায়িকা। তিনি ‘ফোর্বস ম্যাগাজিন’ ডিজিটাল তারকা হিসেবে বিশ্বের ১০০ জনের মধ্যে আসামির নাম অন্তর্ভুক্ত। আসামি জেলহাজতে আটক থাকলে চলচ্চিত্রের অঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি হবে। তাছাড়া বিভিন্ন কোম্পানি ও চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সঙ্গে শিল্পী হিসেবে চুক্তিসমূহের শর্ত লঙ্ঘিত হবে। সম্প্রতি ‘প্রীতিলতা’ নামক সরকারি সিনেমার জন্য ফটোশুট হয়েছে। ফলে আসামিকে যে কোনো শর্তে জামিনে মুক্তি দেওয়া আবশ্যক। অন্যথায় ন্যায় বিচার পরাভূত হবে।

৮। জামিনের স্বপক্ষে অপরাপর আইনানুগ হেতুবাদসমূহ শুনানিকালে নিয়োজিত আইনজীবীর বাচনিকে প্রকাশ পাবে।

উল্লেখ্য, পরীমনি ২০১৪ সালে সিনেমা জগতে আসেন। এ পর্যন্ত ৩০টি সিনেমা ও পাঁচ-সাতটি টিভিসিতে অভিনয় করেছেন। প্রযোজক রাজ তাকে পিরোজপুর থেকে ঢাকায় সিনেমা জগতে নিয়ে আসেন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!