পাঁচ বিড়াল ছানাকে খেতে আসলো বড় পাইথন, পা-ইথনের সাথে একা ল-ড়ে ছানাদের বাঁচালো বিড়াল, ভাইরাল ভিডিও

পাঁচ বিড়াল ছানাকে খেতে আসলো বড় পাইথন, পা-ইথনের সাথে একা ল-ড়ে ছানাদের বাঁচালো বিড়াল, ভাইরাল ভিডিও

নিজের সন্তানের আ-র্ত-নাদ যেকোনো মা এর কাছে ক-ষ্ট-কর । সেটা মানুষ হোক বা জীবজন্তু । আমাদের প্রতিনিয়ত জীবনে এমন অনেক ঘটনাই ঘটে থাকে যা আমাদের হাসায়, কাঁ-দায়, বা অনুপ্রেরণা জাগায়।

তার সাথে সাথে আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় যুক্ত এমন অনেক ভিডিও বা ছবি ভাইরাল হয় যা কখনো কখনো আমাদের অনুপ্রেরণা জায়গায় ,কখনো বা আমাদের হাসতে শেখায়,

আবার কখনো আমাদর শিক্ষা দেয় বু-ক চি-তিয়ে শেষ নিঃ-শ্বাস অ-বধি ল-ড়াই এর । বর্তমানে সামাজিক মাধ্যমে এরোম অনেক ছোট বড় ঘটনা আমাদের নজরে আসে । এ প্রজন্মের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ শব্দটি যেটি সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে বা সামাজিক মাধ্যম এর সাথে যুক্ত সেটি হল” ভাইরাল ” ।

এই ভাইরাল শব্দের মাধ্যমে আমরা সাধারণত কোন কিছুর গুরুত্ব বিচার করে থাকি । মা শব্দটি সবথেকে ছোট হলেও এটি পৃথিবীর সবথেকে শ-ক্তি-শা-লী এবং সাহসী একটি শব্দ। সে মানুষ হোক বা পশুপাখি বা জন্তু ।

এই শব্দের মধ্যে জ-ড়িয়ে আ-ছে আবেগ, ভালোবাসা,ল-ড়াই ক-রার শ-ক্তি । কিন্তু এর সাথে মায়ের কি সম্পর্ক তা এখনো ঠিক বুঝে উঠতে পারছেন না তাইতো ? সম্প্রতি ফেসবুক একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সেই ভিডিওতে দেখা যায় এক সাহসী মায়ের ছবি। একটি সাহসী বিড়াল মা এর ছবি ।

সাধারণত সা-প এমন এক ধরনের স-রী-সৃ-প প্রা-ণী যা-কে কমবেশি আমরা প্রত্যেকেই ভ-য় পা-য় । কারণ সাপের মধ্যে থাকে এমন এক ধরনের বি-ষ যা একবার শরীরে প্র-বেশ ক-রলে নি-মি-ষের মধ্যে ঘ-টতে পা-রে জী-বন-না-শ ।

অর্থাৎ সা-পের ছো-বলে মানুষের আস্ত একটা জীবন চলে যেতে বেশি সময় নেয় না । কিন্তু এক্ষেত্রে এক ন-জির-বি-হীন ঘটনা দেখা গেল । সেখানে বিড়াল নিজেদেরকে এবং নিজের সন্তানদের বাঁচাতে নিজের প্রা-ণ বা-জি রা-খতে পি-ছপা হননি ।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে, একটি অ্যা-না-কো-ন্ডা সা-প একটি বিড়াল এবং তার বেশ কয়েকটি বাচ্চার দিকে আ-ক্র-মণের জন্য এগিয়ে আসছে । রীতিমতো প্রথমদিকে ভ-য়ে স-ন্ত্রস্ত হ-য়ে প-ড়ে বিড়ালটি ।

কিন্তু পরবর্তীকালে সে চি-ন্তা করে যে নিজের জীবন যাবে যাক কিন্তু কোন ক্ষেত্রে সন্তানকে সা-পের হা-তে তু-লে দি-তে পা-রবে না । তাই একা রুখে দাঁড়ায় অ্যা-না-কোন্ডার বি-রুদ্ধে । ল-ড়াই জা-রি রা-খে সে ।।

বি-ষ-ধ-র সা-পের সাথে নিজের জীবনকে বা-জি রে-খে সন্তানদের বাঁচাতে দুবার ভাবেনি সেই বিড়ালটি । অবশেষে দুজন মানুষ এসে গর্ত থেকে সে অ্যা-না-ক-ন্ডা সা-প থেকে টে-নে বে-র ক-রে জ-ঙ্গলে ছে-ড়ে দেয় । এমন টি ভিডিও শেষ প্রান্তে দেখা যায় । সাথে সাথে সেই বিড়ালটিএবং তার বাচ্চা গু-লি প্রা-ণে বেঁ-চে যায় ।

ভিডিওতে দেখানো বিড়ালের সেই পারদর্শিতা এবং সাহসিকতা অনেকে প্রশংসা করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে । তার পাশাপাশি কমেন্ট সেকশনে অনেকেই এই ধরনের ন-জির-বি-হীন ঘটনা তুলে ধরার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়াকে । মা সবার আগে সন্তানদেরকে রক্ষা করে এ কথা প্রমাণিত হয়েছে বহুবার এবং আগামী দিনেও প্রমাণিত হবে একথা অ-স্বীকার করার কোনো উপায় নেই । ভিডিওতে ইতিমধ্যে প্রচুর ভিউজ এসেছে । তার পাশাপাশি এসেছে প্রচুর কমেন্ট ও শেয়ারের সংখ্যা ।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!