শাহরুখের নায়িকা অভিনয় ছেড়ে হয়ে গেলেন করোনা রোগীদের সেবিকা

শাহরুখের নায়িকা অভিনয় ছেড়ে হয়ে গেলেন করোনা রোগীদের সেবিকা

গত বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনা ভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ে। এই করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বের মানুষ দিশেহারা হয়ে পরে। এমনকি দেশে দেশে ডাক্তার ও সেবিকারা সেবা দিতে গিয়ে হিমশিম খায়।

আর এই সময় অনেকে সদিচ্ছায় সেবিকার ভূমিকা পালন করতে নেমে যান। তেমনি বলিউডের তারকা নায়ক শাহরুখের নায়িকা অভিনয় ছেড়ে সেবিকা হয়ে নেমে যান। তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সেবা দেওয়ার জন্য পুরোদমে সেবিকা হয়ে গেলেন।

এই কাজটা করেছেন ভারতের বলিউডের অভিনেত্রী শিখা মালহোত্রাও। ২৫ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করে বেশ নামও কামিয়েছিলেন। গ্লামারাস জীবন যাপন করেন তিনি।

২০১৬ সালে সুপারস্টার শাহরুখ খানের সঙ্গে কাজ শুরু করেন। কাজ করেন মূল অভিনেত্রী হিসেবে। ২০২০ সালে মুক্তি পায় ’কাঁচুলি’। কাজগুলো এত আকর্ষণীয় ও সাড়া জাগানো হয়েছিল যে, মালহোত্রা বলিউডের আলোচিত তারকা হিসেবে নিজের স্থান করে নেন।

মার্চ, ২০২০। বলিউডের শহর মুম্বাইয়ে হানা দিল করোনাভাইরাস। লকডাউনের দুদিন আগে লাইট আর ক্যামেরায় অভ্যস্ত জীবন কাটানো মালহোত্রা গুরুতর এক সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন। অভিনয়ে ক্যারিয়ার গড়ার চেষ্টা করলেও তার নার্সিং ডিগ্রিও ছিল। শহরের হাসপাতালগুলোতে গিয়ে হাজির হলেন। জানালেন, স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে তিনি করোনারোগীদের জন্য কাজ করতে চান। বললেন, আমি প্রথমে একজন সেবিকা, অভিনেত্রী আমার পরের পরিচয়।

সেসময় জীবন-মৃ’’ত্যু’’র দোলাচলে দুলছিল মানুষের মন। মালহোত্রা দেখছিলেন এত আবেগ, আকুতি, সুখ এবং দুঃখ। এসব দেখে মনে মনে পাল্টে গেলেন তিনি। হঠাৎ মনে হলো তিনি যা করছেন, তা যথেষ্ট নয়। একজন মানুষ হিসেবে একজন ডিগ্রিধারী সেবিকা হিসেবে তার করার আরো বড় কিছু আছে।
সারা বিশ্বে সংক্রমণের দিক থেকে দ্বিতীয় শীর্ষ দেশ ভারত। আর ভারতের মধ্যে সবচেয়ে খারাপভাবে আক্রান্ত শহরগুলোর একটি মুম্বাই।

মালহোত্রার মা নিজেও পেশায় একজন সেবিকা। মা তখন কাজ করছেন হাসপাতালে।মার দেখাদেখি মেয়েও এগিয়ে গেলেন। তবেমায়েরটা পেশা আর মেয়েরটা হচ্ছে মানবতার ডাকে সাড়াদান। একটা সরকারি হাসপাতালে গিয়ে সেবিকার দলে নাম লেখালেন তিনি।

অসংখ্য কোভিড রোগীর সেবা করেছেন মালহোত্রা। কিন্তু সাত মাস পরে নিজেই আক্রান্ত হলেন করোনায়। ভুগলেন মাসখানেক। যখ সেরে উঠলেন তখন হঠা পক্ষাঘাতে আক্রান্ত হলেন। শরীরে এক পাশ অসাড় হয়ে গেল তার।

এর আগেও অবশ্য একবার প’’ক্ষা’’ঘা’’তে আক্রান্ত হয়েছিলেন মালহোত্রা। সেরে ওঠার পর বললেন, আমি আবার সুস্থ হয়েছি। তবে এর পেছনে সব কৃতিত্ব আমার মায়ের।

ফের চালু হতে যাচ্ছে তার কর্মক্ষেত্র। ছবিতে অভিনয় করতে চুক্তিবদ্ধ হতে যাচ্ছেন।

তবে নিজের নার্সিং পেশাটাকে এখন আবার অভিনয়ের পাশাপাশি নিয়ে এসেছেন। বলেছেন, যখনই প্রয়োজন হবে, তখনই আবার হাতে গ্লাভস নিয়ে কাজে নেমে পড়ব আমি। সূত্র : এপি

উল্লেখ্য, এই নায়িকা ইতিমধ্যে কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তবে করোনা ভাইরাস দেখা দেওয়ার পর যখন সারা পৃথিবীর মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে ঠিক এই সময় এই নায়িকা করোনায় আক্রান্ত রোগীদের সেবা দেওয়ার জন্য নেমে পড়েন। তবে তিনি সব সময় সাধরণ মানুষের জন্য কাজ করতে চেয়েছেন। আর সেই জন্য তিনি আভিনয় ছেড়ে সেবিকা হয়েছেন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!