বিবা’হিত ভা’তিজির সাথে প্রেম, শ্ব’শুরবাড়ি ফিরে যা’ওয়ায় প্রকাশ্যে কু’পিয়ে খু*ন করল চাচা!

বিবা’হিত ভা’তিজির সাথে প্রেম, শ্ব’শুরবাড়ি ফিরে যা’ওয়ায় প্রকাশ্যে কু’পিয়ে খু*ন করল চাচা!

ফে’র ঘ’টনাস্থল সেই উত্তরপ্রদেশ । আ’বারও একটি ঘৃ’ণ্য, নি’ন্দ’নীয় ঘ’টনার সাক্ষী থা’কল যোগীর রাজ্য । ভা’ইঝির স’ঙ্গে প্রে’মের সম্প’র্ক ছিল কা’কার । কিন্তু ভাইঝি শ্ব’শুরবাড়ি ফিরে যাওয়ায় বি’শ্বাসঘাত’কতার ‘অ’পরাধে’ তাঁকে কু’পি’য়ে খু*ন করল সেই কাকা ।

উত্তরপ্রদেশের বু’লন্দশহর এলাকার দি’বাইরপুর গ্রামে গত সোমবার ঘট’নাটি ঘটেছে । জানা গি’য়েছে, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি শ্ব’শুরবাড়ি থেকে দুই স’ন্তানকে নিয়ে চলে এ’সেছিলেন বছর ছা’ব্বিশের ওই ম’হিলা ।

এরপর থেকেই কা’কার স’ঙ্গে এক আ’ত্মীয়ের বাড়িতে থা’কতে শুরু করেছিলেন । কিন্তু ওই ম’হিলার আত্মীয়-স্বজন এবং শ্ব’শুরবাড়ির লোকেরা বারবার তাঁকে ফিরে আ’সার জন্য চা’প দিতে শুরু করেন ।

শেষ পর্যন্ত শ্ব’শুরবাড়ি ফিরে যাওয়ার সি’দ্ধান্ত নেন ওইম’হিলা । কিছুদিন আগেও ফি’রেও গিয়েছিলেন তিনি । কিন্তু ঝা’মেলা বাঁধে সেখানেই । ত’রুণীর কাকা এতেই রে’গে যায়।

ভা’ইঝি তার স’ঙ্গে বি’শ্বাসঘা’তক’তা করেছে, তাকে ঠ’কিয়েছে, এমনই ধারণা হয় তার । এরপর গত সোমবার ধা’রাল অ”স্ত্র নিয়ে ভা’ইঝির শ্বশুর’বাড়িতে চড়াও হয় ওই ব্যক্তি ।

প্রকাশ্যেই একের পর এক ছু’রির কো’প মা’রতে’ থাকে । কোনওরকমে ওই ম’হিলাকে উ’দ্ধার করে হা’সপাতা’লে নিয়ে যাওয়া হয় । কিন্তু চিকিৎসা চ’লাকালীনই মৃ”ত্যু হয় তাঁর ।

মাদ্রাসা শিক্ষকের নি’র্যাতন, ইয়াসিনের মনের ব্য’থা কমানোর চেষ্টায় ইউএনও

সাত বছরের ইয়াসিন। এই ব’য়সে পরিবারের প্রতি টান থাকা’টাই স্বা’ভাবিক।

কিন্তু এই টানই কাল হলো তার জন্য। বাবা-মায়ের স’ঙ্গে বাড়ি ফিরতে চাওয়ায় তাকে বেধড়ক পে’টালেন শিক্ষক।

হাটহাজারী পৌরসভার মা’রকাজুল কোরআন ইসলামি অ্যাকাডেমি মাদরাসায় ঘ’টেছে এ ঘ’টনা। মঙ্গলবার (৯ মা’র্চ) থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শি’শু নি’র্যাতনের ভিডিওটি ভাইরাল হয়।

বি’ষয়টি নজরে এলে হাটহাজারী উপজে’লা নির্বাহী ক’র্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিন নিজ উদ্যো’গে শি’শুটিকে উ’দ্ধার করেন। কিন্তু পরিবারের অনিচ্ছায় ওই মাদরাসা শিক্ষকের বি’রুদ্ধে ব্যব’স্থা নেওয়া যায়নি।

জা’না গেছে, মা’রকাজুল কোরআন ইসলামি অ্যাকাডেমি মাদরাসার হিফজ বিভাগের শিক্ষার্থী ইয়াসিনকে গত ৮ মা’র্চ বিকেলে দে’খতে যান মা পারভিন আক্তার ও বাবা মোহাম্ম’দ জয়নাল। কিন্তু ফেরার সময় ছোট্ট শি’শুটি মা-বাবার স’ঙ্গে বাড়ি যাওয়ার বায়না ধ’রে। একপর্যায়ে শি’শুটি মা-বাবার পিছু পিছু মাদরাসার মূ’ল ফটকের বাইরে চলে আ’সলে ক্ষি’প্ত হয়ে ওঠেন মাদরাসার শিক্ষক মো. ইয়াহিয়া।

মূ’ল ফটকের বাইরে যাওয়ায় শি’শুটিকে বেধড়ক পে’টাতে থাকেন তিনি। এসময় শি’শুটির বাঁ’চার আকুতিও শুনেননি ওই শিক্ষক।

হাটহাজারী উপজে’লা নির্বাহী ক’র্মকর্তা রুহুল আমিন বাংলানিউজকে বলেন, ঘ’টনাটি আমা’র নজরে আসার স’ঙ্গে স’ঙ্গে মঙ্গলবার (৯ মা’র্চ) রাত ১টার দিকে থা’না পু’লিশের কয়েকজন সদস্যকে নিয়ে ঘ’টনাস্থলে গিয়ে শি’শুটিকে উ’দ্ধার করি এবং অ’ভিযুক্ত শিক্ষককে আ’টক করি। কিন্তু পরিবার ওই শিক্ষকের বি’রুদ্ধে আ’ইনি কোনো ব্যব’স্থা নিতে রাজি নন। তাই বা’ধ্য হয়ে ওই শিক্ষককে ছে’ড়ে দিয়েছি।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!