নারী কবিরাজের যৌ,ন উ,ত্তে,জ,ক সিরাপ কারখানায় অভিযান, জরিমানা-সিলগালা

নারী কবিরাজের যৌ,ন উ,ত্তে,জ,ক সিরাপ কারখানায় অভিযান, জরিমানা-সিলগালা

পাবনা পৌর সদরের শালগাড়িয়া পি এন রোডের মাছুম বাজারে ‘কসমিকো ইউনানি ল্যাবরেটরিজ লিমিটেড’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়েছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

এসময় যৌন উত্তেজক সিরাপ, ট্যাবলেট, সিরাপ তৈরির যন্ত্রপাতি জব্দ করেছে পুলিশ। পাশাপাশি কারখানা মালিক কথিত হাকিম (নারী কবিরাজ) মমতাজ পারভিনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করে কারখানাটি সিলগালা করে দেয়া হয়।

বুধবার (২৮ জুলাই) বিকেলে এ অভিযান চালানো হয়।
ডিবি পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) আব্দুল হান্নান জানান, অনেক দিন ধরে কথিত নারী কবিরাজ নিজ বাড়িতে কারখানা স্থাপন করে অবৈধ যৌন উত্তেজক সিরাপ, ট্যাবলেট উৎপাদন ও বিপণন করে আসছিলেন।

এসব অবৈধ যৌন উত্তেজক সিরাপ ও ট্যাবলেট পাবনা শহরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বাজারজাত করছিলেন তিনি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খানের নির্দেশে ডিবি পুলিশের একটি টিম সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় ওই কারখানা থেকে বিপুল পরিমাণ যৌন উত্তেজক সিরাপ, ট্যাবলেট ও এসব তৈরির উপকরণ জব্দ করা হয়।

অভিযানে থাকা জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর পাবনার সহকারী পরিচালক আব্দুস সালাম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। অবৈধ, ভেজাল ও জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর কথিত সিরাপ এবং অন্যান্য ভেজাল ওষুধ উৎপাদন ও বাজারজাতকরণের দায়ে কারখানা মালিক মমতাজ পারভিনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। পরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে তাকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। শেষে কারখানাটি সিলগালা করে দেয়া হয়।

অভিযানে থাকা পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মাসুদ আলম জানান, উৎপাদিত এসব যৌন উত্তেজক সিরাপে বিভিন্ন শ্রেণির যুবক, সাধারণ শিক্ষার্থীসহ অনেকে আসক্ত হয়ে পড়ছেন ও স্বাস্থ্যঝুঁকির মধ্যে পড়ছেন। অতি মুনাফার জন্য গড়ে ওঠা চক্র এসব উৎপাদন ও বাজারজাত করছে।

তিনি বলেন, জেলা পুলিশের উদ্যোগে পাবনায় সব ধরনের মাদক, অপরাধ ও সন্ত্রাসমুক্ত করার কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। ভবিষ্যতেও এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!