এক উপায়েই দূর হবে ত্বকের সব দাগসহ বয়সের ছাপ!

এক উপায়েই দূর হবে ত্বকের সব দাগসহ বয়সের ছাপ!

ত্বকের প্রতি কম-বেশি সবাই যত্নবান। তারপরও কিছু কিছু ভুল অভ্যাস আছে যা আমদের ত্বক নষ্ট করার জন্য দায়ী। যার ফলে কম বয়সে ত্বকে বলিরেখা পড়ে। সঙ্গে ব্রণ ও ব্রণের দাগ পড়ে, উজ্জলতা নষ্ট হয়।

এর থেকে রক্ষা পেতে ত্বকে কত কিনা ব্যবহার করেন সবাই। প্রকৃতপক্ষে কোনটা ব্যবহার করলে উপকার পাওয়া সম্ভব তা অনেকেই জানেন না। আর না জানার কারণে সঠিক জিনিসটার উপকার পাওয়া থেকে বঞ্চিত হতে হয়। তবে জানেন কি, কোনো প্রসাধনী নয়, ঘরে থাকা একটি উপাদানেই ত্বকে উজ্জ্বলভাব আনার পাশাপাশি বয়সের ছাপ দূর করা সম্ভব।

উপাদানটি হচ্ছে দুধের সর। যা ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। চলুন জেনে নেয়া যাক ত্বকের যত্নে দুধের সরের ব্যবহার ও উপকারিতা-

সবচেয়ে ভালো ময়েশ্চারাইজার= দুধের সর উন্নত চর্বিতে ভরপুর যা ত্বকের প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে। ত্বকে কয়েক মিনিট দুধের সর মালিশ করলে তা ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে ক্ষতিগ্রস্ত কোষের ক্ষয় পূরণ করে।

দুধের সর=
কালো দাগ দূর করেঃ ত্বকের কালো দাগ দূর করতে আক্রান্ত স্থানে কয়েক মিনিট দুধের সর মালিশ করুন। ভালো ফলাফলের জন্য সরের সঙ্গে এক টেবিল-চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। শুকিয়ে আসলে সাধারণ পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। সর মৃত-কোষ দূর করে এবং নতুন কোষ গঠনে সহায়তা করে।

বয়সের ছাপ দূর করে= প্রাচীনকালে নারীরা ফেইস প্যাক বা স্ক্রাবার হিসেবে নিয়মিত দুধের সর ব্যবহার করতেন। এর প্রোটিন ও ভিটামিন কোষকলার উৎপাদন বাড়ায় এবং বয়সের ছাপ পড়া দূর করে।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়= দুধের সর কেবল ভালো ময়েশ্চারাইজার-ই না বরং এটা ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতেও সাহায্য করে। সরের সঙ্গে মধু মিশিয়ে তা মুখে লাগান। মধু উচ্চ খনিজ সম্পন্ন যা ত্বক সুস্থ রাখে এবং আগের চেয়ে অনেক বেশি ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

ত্বকের রঙ হালকা করে= দুধের সরে থাকে ল্যাক্টিক অ্যাসিড। যা ত্বকের পোড়াভাব দূর করে এবং প্রাকৃতিকভাবেই রঙ হালকা করে সার্বিকভাবেই ত্বক উন্নত করে

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!