মৃত্যুর দেড় ঘণ্টা আগে চাচাতো ভাইকে যে মেসেজ পাঠিয়েছিলেন সোনিয়া

মৃত্যুর দেড় ঘণ্টা আগে চাচাতো ভাইকে যে মেসেজ পাঠিয়েছিলেন সোনিয়া

কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের মঙ্গলবাড়িয়া এলাকার বিপুল হোসেনের স্ত্রী সোনিয়া খাতুন মৃত্যুর দেড় ঘণ্টা আগে একটি মেসেজ পাঠিয়েছিলেন তার চাচাতো ভাইয়ের মোবাইলে। যা জন্ম দিয়েছে নতুন চাঞ্চল্যের।কী লেখা ছিল সেই মেসেজে?

সোনিয়ার চাচাতো ভাই আশিক ইসলাম বলেন, বুধবার সকাল ৭টা ৫৩ মিনিটে আমার মোবাইলে একটি ম্যাসেজ আসে। সেখানে লেখা ছিল- ‘ভাইয়া আমাকে নিয়ে যেতে বল। মা আর ছোট মাকে আসতি বল। আমি খুব কষ্টে আছি, আমাকে মা”রে”ছে। তুই কারুক বলিস না। ফোন দিস না, তাহলে আমার কছে থেকে নিয়ে নেবে।’

আশিক ইসলাম বলেন, গতকাল সকালে সোনিয়ার মেসেজ পাওয়ার দেড় ঘণ্টা পরই শুনতে পাই সে মারা গেছে। তার মেসেজ থেকেই স্পষ্ট হয়েছে যে- বিপুল তাকে নি”র্যা”ত”ন করে হ”ত্যা করেছে। বিপুল ও তার পরিবারের কঠিন শা’স্তি হওয়া উচিত।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা. তাপস কুমার সরকার বলেন, বুধবার সকালে মৃত অবস্থায় সোনিয়া খাতুনকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন তার স্বামী। তারা জানান- সোনিয়া ফাঁ”স দিয়ে আ”ত্ম”হ”ত্যা করেছে। পরে পুলিশ এসে লা”শ ম”র্গে পাঠিয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর কারণ বলা যাবে না।

এর আগে, মঙ্গলবার রাত থেকেই ঈদে বাবার বাড়ি যাওয়ার বায়না ধ”রা”য় স্বামীর সঙ্গে ক”ল”হ চলছিল সোনিয়া খাতুনের। ওই রাতে তাকে মা”র”ধ”র করেন বিপুল হোসেন। পরদিন সকালে জানা যায় সোনিয়া মারা গেছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ শওকত কবির জানান, লা”শ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!