আতা খেলে সেরে যাবে আপনার এই বিশেষ রোগ গুলি, জেনেনিন

আতা খেলে সেরে যাবে আপনার এই বিশেষ রোগ গুলি, জেনেনিন

এই আতা ফলে পটাসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম-এ পরিপূর্ণ।ডায়াবেটিসকে জন ইটা উপকারী ফল কেননা এতে গ্লাইসেমিকের মাত্রা ৫৪।তাই এটা ডায়াবেটিসের রোগীরা নিশ্চিন্তে খেতে পারবেন।

এতে থাকা ভিটামি৯ন সি,এ পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম থেকে দৃষ্টি শক্ত ভালো রাখতে সাহায্য করে।এছাড়াও এই ফলটি স্মরণশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

এতে থাকা গ্লাইসেমিকের মাত্রা ৫৪ থেকে এই ফল ডায়াবেটিসের রোগীরা নিশ্চিন্তে খেতে পারবে।

এতে থাকা ভিটামিন সি, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম হার্ট ভালো রাখে।তাই যারা হার্টের সমস্যায় ভোগেন তারা এই ফলটি খেতে পারেন।

যাদের ওবেসিটি আছে তারা এই ফলটি খেতে ভয় পান, তাদের ভয় পাবার কারণ নেই কারণ এতে থাকা ভিটামিন বি কমপ্লেক্স হজম শক্তি বাড়ায়, তাই যাদের অম্বল,ওজন নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছেন তারা এই ফলটি খেতে পারেন।

যেসব মহিলারা PCOD -তে ভোগেন তাদের কাছে এই ফলটি হলো অমৃত।এর পাশাপাশি রাগ,বিরক্তি, ক্লান্তি কমায়, গকার্ভধারণের সমস্যা মেটায়।

যদি একটু মোটা হতে চান, তাহলে এই সহজ উপায় জেনেনিন

প্রায় সবাই ওজন কমিয়ে স্লিম হতে চান, তখন কেউ কেউ আছেন যারা অতিরিক্ত শুকনো হওয়ার চেষ্টা করছেন সামান্য ওজন বাড়াতে।যারা এই ওজন বাড়াতে চাচ্ছেন তাদের জন্য বেশেষজ্ঞদের পরামর্শ:-

ওজন অতিরিক্ত কম মানে বোঝা যায় যে খাবারের প্রতি খুব একটা আগ্রহ নেই।তবে সঠিক ওজন ও সুন্দর ফিগার চাইলে পরিমিত পুষ্টিকর খাবার প্রতিদিন খেতেই হবে।

বারবার অল্প অল্প খেলে শরীরে মেটাবলিজম বেড়ে যায় ফলে ওজন কামে আসে।এজন্য দিনে ৩-৪বার পেট ভরে খান।

> উচ্চ ক্যালোরিযুক্ত খাবার একটু বেশি পরিমানে খেতে হবে।

> শাকসবজি ও ফ্যাট জাতীয় খবর খান।

> ভাতে থাকে পুষ্টি ও ভাতের ফ্যানে থাকে ফ্যাট, তাই একমাস ভাতের ফ্যান খান ওজন অবশ্যই বেড়ে যাবে।

অভিজ্ঞ পুষ্টিবিদদের পরামর্শ অনুযায়ী ভায়েতের একটি নির্দিষ্ট চার্ট টি করুন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!