মোটা মেয়ে বিয়ে করার সুবিধা জানলে অবাক হবেন

মোটা মেয়ে বিয়ে করার সুবিধা জানলে অবাক হবেন

প্রতিটি মানুষের কিছু পছন্দ থাকে। কারো পছন্দ চিকন মেয়ে আবার কারো মোটা। তবে এর কারণের যেন শেষ নেই। তবে সম্প্রতি এক গবেষণায় যে ফলাফল দেয়া হয়েছে, তা শুনলে হয়ত আপনারই মাথা খারাপ হবে।

তাতে বলা হয়েছে, সহধর্মিনীতে সুখ চান? তাহলে এখনই ঘরে তুলুন মোটা মেয়ে! সে গবেষণায় আরো বলা হয়েছে, জীবনে সুখী হতে হলে, অবশ্যই মেদওয়ালা মেয়েদেরই বিয়ে করা উচিত।

মেক্সিকোর এক বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন গবেষণার উঠে এসেছে এ ধরণের তথ্য। যেখানে বলা হয়েছে পাতলা মেয়েদের থেকে মেদযুক্ত নারীদের সঙ্গে বিয়ে হলেই নাকি পুরুষ হবে সবচেয়ে সুখী।

গবেষণায় উঠে আসা তথ্য অনুযায়ী, মোটা মেয়েরা সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে খুবই পটু। কারণ, তারা শরীরের চাকচিক্যের থেকে ইমোশনকে গুরুত্ব দেয় সবচেয়ে বেশি।

মোটা মেয়েরা স্বামীর প্রতি বেশি যত্নশীল হয়ে থাকে। মোটা মেয়েকে বিয়ে করলে মানসিক দিক থেকেও শক্ত থাকা যায়।কথিত আছে, মোটা মেয়েরা বুদ্ধির ভাণ্ডার।

এইটা কোনো মিথ্যা মন্তব্য নয়, ব্রিটিশ শিক্ষকদের একটি গবেষণায় উঠে এসেছে এই তথ্য। এদের বুদ্ধি নাকি রোগাদের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি হয়। তাই ঘরে হোক কিংবা বাইরে, সব কাজই নিপূণতার সঙ্গে চালিয়ে নিতে পারেন মোটারা।

এর বাইরেও আরেকটি কথা বলতে হয়, মোটানারীদের ড্রেসিং চয়েস নাকি রোগা মেয়েদের থেকে অনেকগুণে ভালো হয়। কোন ড্রেসে তাদের সবচেয়ে ভালো মানাবে, আর কোনটাই খারাপ দেখাবে তা দ্রুত নির্বাচন করতে পারেন মোটা নারীরা।

সর্বশেষ যে বিষয়ে মোটা মেয়েরা বেশি পারদর্শী, সেটি হলো রান্না। এই দিক থেকে রোগা মেয়েদের তুলনায় অনেকগুণ বেশি পারদর্শী হয় স্বাস্থ্যবান নারীরা। এরা নিজের খাওয়ার থেকে পরিবারের লোকদের খাওয়াতে বেশি পছন্দ করেন।

ঠিক মতো খাওয়া হলো কিনা, সেই দিকেও নজর থাকে তাদের। অপরদিকে চিকন নারীরা, চিকন হলেও খান বেশি। তাই তাদের খাওয়ার সময় অন্যের প্রতি নজর থাকে কম।

আর মোটাদের রান্নার প্রতিএকটা আলাদা টান আছে। ফলে নিত্যনতুন এই ধরনের সুবিধার জন্য এখনই মোটা নারীকে ঘরে তুলুন। মূলত এই গবেষণাটি কিন্তু এই সুবিধাগুলো দেখেই মোটা নারীকে বিয়ে করতে বলেছে।

মোটা মেয়েরা সবসময় খুশি থাকতে ভালোবাসে এবং এরা মনের দিক থেকেও খুব সরল। এরা তাদের চারিপাশের মানুষদেরও খুশি রাখে। মোটা মেয়েরা খুব ইমোশনাল হয় তারা বুদ্ধির থেকে বেশি মনের কথা শোনেন। এক গবেষণায় দেখা গেছে রোগা মেয়েদের বিয়ে করলে বেশি খুশি থাকা যায়।

আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক মোটা মেয়েদের বিয়ে করার সুবিধাগুলি।

১)মোটা মেয়েরা শুধুমাত্র নিজের কথা ভাবেনা, পরিবার এবং স্বামীর গুরুত্ব ও তাদের কাছে অনেক বেশি। এরা স্বামীদের অনেক শ্রদ্ধা করেন। শুধুমাত্র স্বামী নয় শশুরবাড়ির সমস্ত লোকেদেরই সম্মান করেন। সবসময় স্বামী এবং পরিবারকে হাসি খুশি রাখার চেষ্টা করেন।

২) বিয়ের পর মেয়েদের অনেক দায়িত্ব বেড়ে যায়। নিজের বাড়িতে কখনোই কাজ করতে হয়নি কিন্তু শশুরবাড়িতে তাকে সমস্ত কাজ করতে হবে। বলা হয়, রোগা মেয়েদের তুলনায় মোটা মেয়েরা খুব তাড়াতাড়ি তাদের সমস্ত দায়িত্ব বুঝে যায়। এরা নিজের দায়িত্ব সঠিকভাবেই পালন করেন। অন্যদের সেবা করতে খুবই ভালোবাসেন।

৩) রোগা মেয়েদের থেকে মোটা মেয়েরা বেশি বুদ্ধিমতী হয়। আপনারা অনেকেই ভাবেন রোগা মেয়েরা বেশি বুদ্ধিমতী হয়। কিন্তু তা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। মোটা মেয়েদের মধ্যে কোনো অলসতা থাকে না। যেকোনো কাজই আনন্দে করে ফেলে। যতই কঠিন কাজ হোক না কেন এরা সবাই অল্প সময়ের মধ্যে করে দেয়।

৪) মোটা মেয়েরা রান্নার দিক থেকেও রোগা মেয়েদের তুলনায় বেশি পারদর্শী। এরা নিজের খাওয়ার থেকে পরিবারের লোকেদের ঠিক মতো খাওয়া হলো কিনা সেই দিকেও ধ্যান রাখে। যেটা রোগা মেয়েদের মধ্যে থাকে না এরা শুধুমাত্র নিজেরদের কোথায় ভাবে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!