ফেলে দেয়া আনারসের খো’সাতেই মিলবে পাঁচ জ’টিল রোগ মু’ক্তি!

ফেলে দেয়া আনারসের খো’সাতেই মিলবে পাঁচ জ’টিল রোগ মু’ক্তি!

এই সময়ে বাজারে সহজলভ্য একটি ফল হচ্ছে আনারস। এই গরমে প্রশান্তি পেতে আমা’রা কমবেশি সবাই এই সুস্বাদু ও রসালো

ফলটি খেয়ে থাকি। যা স্বা’স্থ্যের জন্যও খুব উপকারী। জা’নেন কি, এমন কিছু ফল রয়েছে যার বীজ ও খোসা ফলের মতোই সমান পুষ্টিকর। এরকম ফলের মধ্যে অন্যতম হলো আনারস। কি অ’বাক হচ্ছেন? অ’বাক হলেও সত্যি, আনারসের খোসা আমাদের অনেক জটিল রো’গ থেকে মু’ক্তি দিতে সক্ষম।

এর খোসায় রয়েছে বহু গুণাগুণ, যা আমাদের শ’রীরের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। যদিও আম’রা না জে’নেই এর খোসাগুলো অকেজো মনে করে ফে’লে দেই। চলুন এবার জে’নে নেয়া যাক আনারসের খোসার স্বা’স্থ্য উপকারিতা স’ম্পর্কে-

রো’গ প্র’তিরো’ধ ক্ষ’মতা বৃ’দ্ধি

আনারস এবং তার খোসায় উচ্চমাত্রায় ভিটামিন সি থাকে, যা রো’গ প্র’তিরো’ধ ক্ষ’মতা বৃ’দ্ধিতে সহায়তা করে।

হ’জম ক্ষ’মতা উন্নত করে

আনারসের রসালো অংশের চেয়ে খোসাটি অনেকটা শক্ত এবং স্বাদেও কিছুটা তেতো। তবে এই খোসা ফাইবারের অন্যতম উৎস, যা হ’জম ক্ষ’মতা বৃ’দ্ধিতে সহায়তা করে।

ঠাণ্ডা থেকে উপশম

আনারসের খোসাতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও মিনারেল থাকে। তাই ঠাণ্ডা লাগলে তা থেকে বাঁচতে গ্রহণ ক’রতে পারেন আনারস্বের খোসা।

চোখ ভালো রাখে

আনারসের খোসায় থাকে বিটা ক্যারোটিন, যা চোখের রেটিনাকে ঠিক রাখতে সাহায্য করে। চোখের ম্যাকুলার ডিজেনারেশন রো’গ হওয়া থেকে র’ক্ষা করে। এই সমান কা’র্যকরী গুণ আনারসের সুস্বাদু অংশেও থাকে।

হার্টের স’মস্যা দূ’র করে

আনারসের খোসায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি থাকে, যা হৃদরো’গ প্র’তিরো’ধের জন্য দুর্দান্ত। আপনার যদি হার্ট এর স’মস্যা থেকে থাকে তবে আপনি এটি খেতে পারেন।

কীভাবে খাবেন?

খোসা থেকে কাঁটাগুলোকে ভালোভাবে বার করে ফলের স’ঙ্গেই খোসা খেতে পারেন। অথবা কাঁটা অংশ বাদ দিয়ে গ্রাইন্ডারের মাধ্যমে রস বের করে খেতে পারেন। আবার আনারস খোসার চা তৈরি করেও খেতে পারেন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!